করোনায় স্কুল বন্ধে ওই দেশে বেড়েছে গর্ভধারণ

0
30

নিউজ ডেস্কঃ

করোনায় স্কুল বন্ধে ওই দেশে বেড়েছে গর্ভধারণ মহামারি করোনাভাইরাসের জেরে স্তব্ধ পুরো পৃথিবী। সংক্রমণ ছড়িয়ে পরা রোধে বন্ধ রয়েছে বিভিন্ন দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এদিকে করোনার প্রকোপে স্কুল বন্ধ থাকায় কেনিয়ায় কিশোরীদের মধ্যে গর্ভধারণের সংখ্যা বেড়েছে বলে জানিয়েছে জার্মান গণমাধ্যম ডয়েচে ভেলে।

কেনিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় শহর লোদওয়ারে কাজ করা দাতব্য সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল রেসকিউ কমিটির এক পরিসংখ্যান থেকে এ তথ্য জানিয়েছে ডয়েচে ভেলে। সংস্থাটি জানায়, চলতি বছরের জুন-আগস্ট মাসে তাদের গ্রাহকদের মধ্যে গর্ভধারণের সংখ্যা ছিল ৬২৫, যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় প্রায় তিন গুণ।

কাছের এক শরণার্থী শিবিরে মার্চ-আগস্টে গর্ভধারণের সংখ্যা ছিল ৫১, যা গত বছর একই সময় ছিল ১৫৷ বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, কেনিয়ার নাইরোবির এক বস্তিতে বাস করা ১৭ বছরের স্কুল শিক্ষার্থী জ্যাকলিন বসিবরির ক্ষেত্রে তাই ঘটেছে।

নাইরোবির কিবেরা বস্তিতে পাঁচ ভাইবোন ও মায়ের সঙ্গে এক ঘরে গাদাগাদি করে থাকে বসিবরি। করোনার সময় দিনের বেলায় মা যখন সবজি বিক্রি করতে বাইরে গেছে তখন একজনের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে ১৭ বছরের এ কিশোরী। পরে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে সম্প্রতি সন্তানের জন্ম দিয়েছে সে। বসিবরি জানায়, স্কুল খোলা থাকলে হয়তো সে অন্তঃসত্ত্বা হতো না। ভবিষ্যতে আইনজীবী হতে চায় সে। তাই জানুয়ারিতে স্কুল খুললে সে আবারও পড়াশোনায় ফিরে যেতে চায়।

এদিকে জাতিসংঘের জনসংখ্যা তহবিলের কেনিয়ার প্রধান অ্যাডেমোলা ওলাজিদ বলেন, ‘অনেক কিশোরীর গর্ভধারণের আসল সংখ্যা জানা সম্ভব হয় না। কারণ, সামাজিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন হওয়ার আশঙ্কায় অনেকে অন্তঃসত্ত্বা সেবা নিতে হাসপাতাল বা ক্লিনিকে যেতে চায় না।’ অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর হাসপাতালে না যাওয়ায় অনেক কিশোরী বিভিন্ন জটিলতার সম্মুখীন হয়। অনেকে অনিরাপদ গর্ভপাতের দিকে যায় তারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here