27 C
Dhaka
বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২২, ২০২০
Home লাইফস্টাইল ক্ষমাশীল হওয়ার উপায়

ক্ষমাশীল হওয়ার উপায়

লাইফ স্টাইল ডেস্কঃ

অনুতপ্ত নয় এমন মানুষকে ক্ষমা করতে পারাটা সহজ বিষয় নয়।

অথচ সে হয়ত আপনাকে অনেক কষ্ট দিয়েছে। তারপরও ক্ষমা করতে পারলে নিজের কাছেই অন্তত ভারমুক্ত থাকা যায়। কারণ ‘ক্ষমা মহৎ গুণ’।কেউ আমাদের সঙ্গে অন্যায় করলে আমরা তার কাছ থেকে ক্ষমা প্রার্থণা আশা করে থাকি। তবে সে যদি নিজ থেকে ক্ষমা না চায় তাহলে অকারণে নিজে কষ্ট পেয়ে লাভ নেই। বরং তাকে নিজে থেকেই ক্ষমা করে দেওয়ার চেষ্টা করা উচিত।

প্রতিহিংসার আগুলে জ্বলেপুড়ে ছাড়খার না হয়ে কীভাবে ক্ষমা করবেন? সেই পন্থাই জানানো হল মানসিক স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে।দুঃখ প্রকাশ কতটা জরুরি- সিদ্ধান্ত নিনআপনার সঙ্গে কেউ অন্যায় করলে তার কাছে ক্ষমা প্রার্থণা আশা করা খুব স্বাভাবিক। তবে এটা অনেক সময় বুঝতে সহায়তা করে যে, হয়ত এটা আপনার কোনো প্রয়োজ়ন নেই।

ক্ষমার জন্য অপেক্ষা করা আপনাকে কেবল কষ্টই দেবে। তাই সেদিকের মনোযোগ না দেওয়াই ভালো। ক্ষমা চাওয়া অবশ্যই ভালো। তবে এটাও ঠিক, ‘ক্ষমা চাই’ এই শব্দটার মধ্যে এমন জাদুকরী কিছু নেই যা আপনাকে ওই ব্যক্তিকে মন থেকে ক্ষমা করতে সাহায্য করবে।

তাই কারও ক্ষমা চাওয়ার আশায় বসে না থেকে নিজে থেকেই ক্ষমা করে দিন। নিজের অনুভূতি প্রকাশ করুননিজের অনুভূতি প্রকাশ করা দোষের কিছু নয়। বরং অনুভূতি লুকিয়ে রাখাটা অস্বাস্থ্যকর। নিজের বিশ্বাস যোগ্য কাউকে খুঁজে বের করুন এবং তার কাছে মনের কথা বলে বা ক্ষমা চাওয়া যায় এমন একটা জায়গা করে নিন।

যদি কারও কাছে মন খুলে বলতে অস্বস্তি লাগে তাহলে যে কোনো পত্রিকায় বা ব্লগে নাম গোপন করে লিখতে পারেন। মোট কথা হল, যে কোনোভাবেই নিজের অনুভূতি প্রকাশ করুন।সৎ থাকাসততা না থাকলে কোনো সম্পর্কই ধরে রাখা সম্ভব না। তাই নিজের মতো করেই পরিবার বন্ধু এমন-কি সঙ্গীর কাছেও সৎ থাকা উচিত।

তাই কেউ আপনার সঙ্গে অন্যায় করলে তার ক্ষমা চাওয়ার অপেক্ষা না থেকে বরং কীভাবে এর সমাধান করা যায় ও কথা বলে মিটিয়ে নেওয়া যায় সেই চিন্তা করা উচিত।

নিজের আচরণ পর্যবেক্ষণ করাএমন পরিস্থিতি হতে পারে, যেখানে আপনি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ঠিক ছিলেন। আবার এমনও হতে পারে যে, যিনি আপনার সঙ্গে খারাপ আচরণ করেছে তার সেই আচরণের পেছনে আপনি দায়ী ছিলেন। আপনার কাজ কর্ম তাকে খারাপ আচরণ করতে বাধ্য করেছে।

তাই সব সময় দোষারোপা না করে নিজের কার্যক্রিয়া একটু পর্যবেক্ষণ করা উচিত।ছেড়ে দেওয়াক্ষমা করে দেওয়ার মধ্যে সবচেয়ে কঠিন কাজ হল, সেই অনুভূতিটাকে ভুলে যাওয়া বা ছাড় দেওয়া।

তবে নিজের খারাপ লাগানোর বিষয়টাকে ধরে রেখে সময় অপচয় করার চাইতে ‘ছেড়ে দেওয়া’টাই শেষ পর্যন্ত মঙ্গল।ঘৃণা, রাগ, আঘাত ছাড়া পেতে পারেন সুখী, অনুপ্রেরণা ও শান্তির জীবন। আর যদি ক্ষমা করে দেওয়ার বিষয়টা নিজের কাজে লাগাতে পারেন তবে সেটাই বয়ে আনবে মঙ্গল বারতা।

Masum Ranahttps://www.ichchablog.com/?m=1
মাসুম মিয়া, শিক্ষার্থী জার্নালিজম এন্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগ মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি মিরপুর ঢাকা অনেক বড় কিছু করার স্বপ্ন লেখাপড়ার পাশাপাশি ব্লগারে কাজ করে যাচ্ছি। একজন সফল হব ইনশাল্লাহ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

গানের আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় বিজয়ী দুই বাংলাদেশি

গানের আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় বিজয়ী দুই বাংলাদেশি পঙ্কজ ও পল্লবী কোলাজইন্টারন্যাশনাল ওয়াটারকালার সোসাইটি (আইডাব্লিউএস) প্রথমবারের মতো বিশ্বব্যাপী একটি মৌলিক গানের প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে। সেই...

যশোরে “পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্স বীমা কোম্পানি” এর মিটিং ও চেক প্রদান অনুষ্ঠিত

উত্তম, ঝিনাইদেহ: যশোরে ২১ই অক্টোবর (বুধবার) সকাল ১০ টায় অঞ্চলে জনপ্রিয় বীমা প্রকল্প “পপুলার লাইভ ইন্সুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড" এর বার্ষিক সম্মেলন...

আরও আধুনিক ও শিক্ষার্থী বান্ধব বাউবি চাই

দীর্ঘ ২৮ বছরে গুটিগুটি পায়ে এগিয়ে যাওয়া আজ ২১ শে অক্টোবর ২০২০ইং বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। উন্মুক্ত ভাবে শিক্ষা...

কৃষিতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় প্রস্তুতির নির্দেশ

মুর্শিদুল আলম: কৃষি মন্ত্রণালয় ও এর অধীনস্থ সকল কর্মকর্তাদের করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় সার্বিকভাবে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিয়ে কৃষিমন্ত্রী ড. মো: আব্দুর...

Recent Comments