পর্দা উঠলো বিএফএসএফ অনূর্ধ্ব-১৪ একাডেমি কাপের

0
300

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

ফুটবলের তরুণ প্রতিভাকে ছড়িয়ে দিতে আজ পর্দা উঠলো বসুন্ধরা কিংস বিএফএসএফ অনূর্ধ্ব-১৪ একাডেমি কাপের।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম সংলগ্ন আউটার স্টেডিয়ামে (পল্টনমাঠ) বসুন্ধরা কিংস বিএফএসএফ অনূর্ধ্ব-১৪ একাডেমি কাপের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডাশেনের সিনিয়র সহ সভাপতি আবদুস সালাম মুর্শেদী এমপি। বাংলাদেশ ফুটবল সাপোর্টার্স ফোরামের সভাপতি কাজী শহীদুল আলমের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন জুবায়েরের সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি ছিলেন জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব (অতিরিক্ত সচিব) মো. মাসুদ করিম, বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ, নির্বাহী কমিটির সদস্য মো. ইলিয়াস হোসেন, জাকির হোসেন চৌধুরি, হাজী টিপু সুলতান ও মহিদুর রহমান মিরাজ।

অনুষ্ঠানে শুভোচ্ছ বক্তব্য রাখেন টুর্নামেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান ইফতেখার রহমান খান। অনুষ্ঠানে সাপোর্টর্স ফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটি, টুর্নামেন্ট কমিটি ও বিভিন্ন সাব কমিটির সদস্যরা উপস্থি ছিলেন। সম্পূর্ণ ভিন্ন প্রক্রিয়ায় এবার দল নিবন্ধন ও চূড়ান্ত করা হয়েছে। প্রথমে অনলাইনে উন্মুক্তভাবে এন্ট্রি আহ্বান করা হয়। সারা দেশ হতে ১৭টি একাডেমি প্রাথমিক নিবন্ধন করে। ১৭ একাডেমির প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে লটারীর মাধ্যমে ১২টি দল চুড়ান্ত করা হয়। গতবারের ন্যায় এবারো ১২টি ফুটবল একাডেমি দল নিয়ে উক্ত টুর্নামেন্ট আয়োজিত হচ্ছে। ফোরামের কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কাগজ- পত্র, জন্ম নিবন্ধন ও মেডিকেল চেকাপের মাধ্যমে ফুটবলারদের বয়স যাচাই-বাছাই করা হয়েছে।

টুর্নামেন্ট কমিটির পক্ষ থেকে সব দলের খেলোয়াড়, কোচ, সহকারী কোচ এবং ম্যানেজার ও টিম বয়কে স্পনসর প্রতিষ্ঠান প্রদত্ত জার্সি ও পরিচয়পত্র দেয়া হয়েছে। গতবার চ্যাম্পিয়ন দলকে ট্রফি, মেডেল ও নগদ এক লাখটাকা এবং রানার্স আপ দলকে ট্রফি, মেডেল ও নগদ ৫০ হাজার টাকা দেয়া হয়েছিল।

এবারো পুরস্কারের পরিমান একই থাকবে। এছাড়া সেরা খেলোয়াড়, সর্বোচ্চ গোলদাতা, প্রতি পজিশনে সেরা খেলোয়াড়দের পুরস্কৃত করা হবে। নবাবগঞ্জ ফুটবল একাডেমি ও পীরগঞ্জ ফুটবল একাডেমির মধ্যেকার উদ্বোধনী ম্যাচ ২-২ গোলে ড্র হয়েছে। ম্যাচ সেরা হয়েছেন পীরগঞ্জের অধিনায়ক লিওন। নবাবগঞ্জ ফুটবল একাডেমি পক্ষে গোল দুটি করেছেন আবির ও মারুফ এবং পীরগঞ্জ ফুটবল একাডেমির পক্ষে গোল দুটি করেন আলিফনুর ও রায়হান।

দিনের অপর ম্যাচে জালালী ফুটবল একাডেমী বনাম রাজশাহী হরিয়ান ফুটবল একাডেমীর খেলাটি গোলশূণ্য ড্র হয়। ম্যাচ সেরা হয়েছেন রাজশাহী হরিয়ান ফুটবল একাডেমীর ৬নং জার্সিধারী খেলোয়ার মিঠু। দ্বিতীয় ম্যাচের সেরা খেলোয়ারটির পুরস্কার তুলে দেন ‘রাজশাহী-(৩) এর সম্মানিত সংসদ সদস্য আয়নউদ্দিন। গত বছর প্রথম আসরে খেলা প্রায় ১৮০ জন খেলোয়াড় পরবর্তীতে পাইওনিয়ার লিগে খেলেছে। এরমধ্যে শীর্ষ চার দলে আশি ভাগ খেলোয়াড়ই ছিল একাডেমি কাপে খেলা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here