বাংলাদেশের বোলারদের পিছু ছাড়ছে না ইনজুরি

0
150
বাংলাদেশের বোলারদের পিছু ছাড়ছে না ইনজুরি
বাংলাদেশের বোলারদের পিছু ছাড়ছে না ইনজুরি।

ক্রীড়া ডেস্ক: ইনজুরি যেন পিছুই ছাড়ছে না টাইগারদের বোলিং ইউনিটের। নিয়মিত চিকিৎসায় কিছুটা সুস্থ হলেও, চিরদিন ব্যথা নিয়েই খেলতে হবে পেসার শফিউল ইসলামকে। সুখবর নেই তরুণ পেসার তানজিম হাসান সাকিবকে নিয়েও। শোল্ডারের ইনজুরিতে পড়া এই যুবার, ফেরা হচ্ছে না আসন্ন টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে। রিহ্যাবের মধ্যে থেকেই নিজেকে ফিরে পাবার সংগ্রাম মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী নিপুনের।

তবে সে তুলনায় কিছুটা ভালো অবস্থানে লেগস্পিনার মিনহাজুল আবেদিন আফ্রিদি। বিসিবির প্রধান চিকিৎক দেবাশিষ চৌধুরি বলছেন, আলাদাভাবে কাজ করা হচ্ছে সবাইকে নিয়েই।

দীর্ঘ ১ দশকের ক্যারিয়ারে পেসার শফিউল ইসলাম সুহাস নিজেকে অভাগা ভাবতেই পারেন। প্রতিভা নিয়ে প্রশ্ন ছিলো না কোনদিনই। যতটা পেস তারচেয়ে প্রতিপক্ষকে বেশি ভুগিয়েছেন সুইং দিয়ে। অথচ তিন ফরম্যাটে এই সময়ে খেলেছেন মোটে ৯১টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ। এর প্রধান কারণ, বারবারই ইনজুরির আগ্রাসনের শিকার হওয়া।

প্রত্যাশিত ভাবেই ছিলেন বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপে। তবে মেরুদণ্ডের ডিস্কে তীব্র ব্যথা, তাকে ছিটকে দিয়েছিলো টুর্নামেন্ট থেকে। তবে এখানেই শেষ নয়। তার জন্য রয়েছে দুঃসংবাদ। এই ইনজুরি কোনোদিনও সম্পূর্ন ভালো হবে না সুহাসের। চিরদিনই খেলতে হবে ব্যথা নিয়ে। এজন্য শফিউলকেও মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকতে বললেন বিসিবি চিকিৎসক।

বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরি বলেন, বিসিবির মেডিকেল বিভাগ ন্যাশনাল এবং এইচপির কয়েকজনকে নিয়ে কাজ করছে। আমরা চেষ্টা করছি, নভেম্বরের শেষদিকে অনুষ্ঠেয় টুর্নামেন্টে সবাই যেন খেলতে পারে। এরমধ্যে শফিউল বেশকিছুদিন ধরে ব্যাকপেইনের সমস্যায় ভুগছে। মাঝেমধ্যে তার ব্যথা বেড়ে যাচ্ছে। এ জন্য তার যে রিহ্যাব প্রোগ্রাম পরিচালনা করা দরকার, আমাদের ফিজিওদের সহায়তায় সেটি সে করছে। আশা করা যায়, টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করতে তার সমস্যা হবেনা। তবে যেহেতু ব্যাকপেইন, মাঝেমাঝে খেলায় তার সমস্যা হতে পারে।

অনূর্ধ্ব -১৯ বিশ্বকাপে আলো ছড়িয়ে আলোচনায় এসেছিলেন জাতীয় দলের ভবিষ্যত কান্ডারি তানজিম হাসান সাকিব। তবে ইনজুরিতে পরা এই পেসার মাঠের বাইরে থাকছেন আরো দীর্ঘদিন। যেতে হতে পারে শল্যবিদের ছুরির নিচেও। 

দেবাশিষ চৌধুরি বলেন, সাকিবের নেক পেইনের প্রবলেম আছে। খেলাধুলায় অংশগ্রহণে বিরত আছে। আমরা চেষ্টা করেছি তার নেকপেইনের সমস্যার একটা সমাধান করার জন্য। এরপরের ট্রিটমেন্টের অংশ হিসেবে আমরা আরো কয়েকজন কনসালটেন্টের সঙ্গে আলোচনা করবো। 

তবে সে তুলনায় কিছুটা ভালো অবস্থানে পেসার মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী নিপুন। এইচপি দলের হয়ে খেলে ফেলেছেন নিজেদের মধ্যে খেলা প্রস্তুতি ম্যাচটি। আঙুলে চিড় ধরা স্পিনার মিনহাজ আফ্রিদির খবরও ইতিবাচক।

বিসিবির প্রধান চিকিৎসক বলেন, মৃত্যুঞ্জয় তার শোল্ডার প্রবলেমের জন্য সার্জারি করেছে অস্ট্রেলিয়ায়। কিছুদিনের জন্য কোভিড পরিস্থিতির জন্য তার রিহ্যাবে সমস্যা হচ্ছিলো। এখন সেই সমস্যা কেটে গেছে। রিহ্যাব চলছে। আশা করছি কিছুদিনের মধ্যে সে সম্পূর্ণ ফিট হয়ে উঠবে। আফ্রিদির আঙ্গুলে একটু সমস্যা হচ্ছিলো। তবে সেটা গুরুতর কিছু না। 

এছাড়াও আরেক তরুণ পেসার ইয়াসিন আরাফাত মিশু লড়াই করে যাচ্ছেন মাঠে ফিরতে। মাশরাফীও লড়ছেন নিজের সঙ্গে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here