মার্কিন নির্বাচনের সাথে বাংলাদেশের নির্বাচনের তুলনা করা হাস্যকর: মির্জা ফখরুল

0
263
মার্কিন নির্বাচনের সাথে বাংলাদেশের নির্বাচনের তুলনা করা হাস্যকর: মির্জা ফখরুল
মার্কিন নির্বাচনের সাথে বাংলাদেশের নির্বাচনের তুলনা করা হাস্যকর

রাজনৈতিক ডেস্ক: প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনের সঙ্গে বাংলাদেশের নির্বাচনের তুলনা করা হাস্যকর বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শনিবার (১১ নভেম্বর) সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক প্রতিবাদ সমাবেশে সিইসির উদ্দেশে তিনি বলেন, সিইসি বলেছেন ‘যুক্তরাষ্ট্র ৫ দিনে ফল দিতে পারে না, আমরা ৫ মিনিটে পারি।’ আপনারা পারবেন, কারণ ফলাফল আগেই নির্ধারণ করা থাকে।

প্রসঙ্গত গত বৃহস্পতিবার (০৯ নভেম্বর) জাতীয় সংসদের ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনে নিজের ভোট প্রদান শেষে সাংবাদিকদের সিইসি কে এম নুরুল হুদা বলেছেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র ৪ থেকে ৫ দিনে ভোট গুনতে পারে না। আমরা ৪ থেকে ৫ মিনিটে গুনে ফেলি। যুক্তরাষ্ট্রের আমাদের কাছে শেখার আছে। আবার যুক্তরাষ্ট্রের ভালো দিকগুলো থেকে আমাদেরও শেখার আছে।’

ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ আসনের উপনির্বাচনের ফলাফল বাতিল ও নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে করা মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারের প্রতিবাদে শনিবার ও আগামীকাল রোববার দুদিনের বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি।

বিএনপির ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ শাখার নেতাকর্মীরা আজকের সমাবেশে যোগ দেন। সমাবেশে মির্জা ফখরুল ১২ তারিখ উপনির্বাচনের দিন বাস পোড়ানোর ঘটনার নিন্দা জানান।

তিনি আরও বলেন, বিএনপি সন্ত্রাসে না, গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে। বাস পোড়ানোর ঘটনায় মামলা প্রত্যাহার, গ্রেফতার ব্যক্তিদের মুক্তি ও ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ আসনের উপনির্বাচনের ফল বাতিল করে পুনর্নির্বাচন দাবি করেন বিএনপি মহাসচিব। বর্তমান সরকার সুপরিকল্পিতভাবে নির্বাচন ব্যবস্থাকে সম্পূর্ণভাবে ধ্বংস করে দিয়েছে। শুধু নির্বাচন ব্যবস্থাকে নয়, তারা গণতন্ত্র ব্যবস্থাকেও ধ্বংস করে দিয়েছে।’

‘নির্বাচন কমিশন একটা অযোগ্য প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। সেই কারণে দেখেছি- ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচন ২৯ তারিখে হয়েছে। রাতের অন্ধকারে জনগণের অধিকারকে তারা লুট করে নিয়েছে। তারপর থেকে প্রত্যেকটা নির্বাচনে তাদের পক্ষে লুট করে নিয়েছে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ধীরে ধীরে এই নির্বাচন কমিশনের ওপরে জনগণের আস্থা শূন্যের কোটায় চলে এসেছে। তার প্রমাণ পাওয়া যায় ভোটকেন্দ্রে জনগণের উপস্থিতিতে। আমরা ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনে দেখলাম- এত সন্ত্রাস, কারচুপি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করার পরও সেখানে ১৪ শতাংশ বেশি ভোট তারা দেখাতে পারেনি।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেল।

সমাবেশে ঢাকা-১৮ আসনে দলীয় প্রার্থীর নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমানসহ বিএনপির অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here